1. multicare.net@gmail.com : news : VOICE CTG NEWS
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
আজ থেকে গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া শুরু মোরেলগঞ্জে স্পন্দনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি পালন ঝিকরগাছায় মৎস্যজীবী লীগের গাছের চারা ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ ধামরাইতে পূর্বশত্রুতার কারনে গাছ কর্তন হরিপুরে ছেলের লাঠির আঘাতে বাবার মৃত্যু ভাষা শহীদ বিদ্যানিকেতন স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার নামে ঘুষ নেওয়ার অভিযোশিক্ষক নাটোরে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা গ্রহীতাদের উপচে পড়া ভিড় চিরিরবন্দর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১৪ কেজি ২০০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার র‌্যাব-১৩ রংপুর কর্তৃক হেরোইনসহ ২ জন নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোড়েলগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে করোনা সামগ্রী অর্থ সহায়তা প্রদান

ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে আড়াইশ বছরের পুরোনো ঐতিহাসিক আওকরা মসজিদ

  • প্রকাশিত: সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

জে আর জামান, খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ অযত্ন আর অবহেলায় আড়াইশ বছরের পুরনো দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার মীর্জার মাঠে অবস্থিত স্থাপত্য ‘আওকরা’ মসজিদ ধ্বংসের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে।
যদিও স্থানীয় লোকজন নিজ উদ্যোগে সেটি পরিষ্কার করে গত ৩বছর ধরে ঝুকিপুর্ণভাবে সেখানে নামাজ আদায় করছে। সরজমিনে আরও দেখা যায়, দেয়ালে বড় বড় ফাটল ধরছে, অনেক জায়গা ভেঙে গেছে।
এটি খানসামা উপজেলার ৬নং গোয়ালডিহি ইউনিয়ন ও ৩নং আঙ্গারপাড়া ইউনিয়নের মধ্যবর্তী স্থান হাসিমপুর-আংগারপাড়ার মীর্জার মাঠ নামক স্থানে অবস্থিত।

জানা যায়, তৎকালীন মীর্জা সাহেব মসজিদটি প্রতিষ্ঠার সময় কী নাম রেখেছেন, তা কেউ বলতে পারে না। কোনো মানুষ মসজিদের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় মধ্যবর্তী অংশে দাঁড়িয়ে কথা বললে এক সময় জোরে প্রতিধ্বনি সৃষ্টি হতো। তাই শুনে তারা ভাবত মসজিদটি তাদের কথার উত্তর দিচ্ছে। এ থেকে মসজিদের নাম হয়ে যায় ‘আওকরা’ মসজিদ অর্থাৎ কথা বলা মসজিদ।

এখনও মানুষ পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় শব্দ করে কথা বলে প্রতিধ্বনি শোনার আশায়। কিন্তু মসজিদের দেওয়াল ফেটে নষ্ট এবং এর গায়ে আগাছা পরিপূর্ণ হওয়ায় আগের মতো আর আওয়াজ হয় না।এটি দীর্ঘকাল সংস্কারের অভাবে ধীরে ধীরে বিলীনের পথে। অথচ এটিকে সংস্কার করলে এটাও পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে পারে।

মসজিদ কমিটির সদস্য মজনু আলম জানান, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের আওতায় এলেও এখনও এটি সংস্কারের কোনো উদ্যোগ গ্রহন করা হচ্ছে না। আশা করি সংশ্লিষ্ট মহল খুব দ্রুত এটি সংস্কারের ব্যবস্থা করবে।

খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম জানান, আওকরা মসজিদের ছবিসহ সব তথ্য প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরে পাঠানো হয়েছে। এটি খানসামার ঐতিহ্য বহন করে। পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে খানসামার এ মসজিদটি হতে পারে দেশের অন্যতম দর্শনীয় স্থান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

সর্বশেষ খবর