1. multicare.net@gmail.com : news : VOICE CTG NEWS
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
আজ থেকে গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া শুরু মোরেলগঞ্জে স্পন্দনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি পালন ঝিকরগাছায় মৎস্যজীবী লীগের গাছের চারা ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ ধামরাইতে পূর্বশত্রুতার কারনে গাছ কর্তন হরিপুরে ছেলের লাঠির আঘাতে বাবার মৃত্যু ভাষা শহীদ বিদ্যানিকেতন স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার নামে ঘুষ নেওয়ার অভিযোশিক্ষক নাটোরে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা গ্রহীতাদের উপচে পড়া ভিড় চিরিরবন্দর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১৪ কেজি ২০০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার র‌্যাব-১৩ রংপুর কর্তৃক হেরোইনসহ ২ জন নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোড়েলগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে করোনা সামগ্রী অর্থ সহায়তা প্রদান

কুষ্টিয়ার কাজী আরেফ আহমেদ ও মেহেরপুরের বাকী চেয়ারম্যান হত্যা মামলার আসামি রওশন কারাগারে

  • প্রকাশিত: সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩২ বার পড়া হয়েছে

মাজিদ আল মামুন
জেলা প্রতিনিধি, মেহেরপুর।
দীর্ঘ ২২ বছর পর কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জাসদ নেতা কাজী আরেফ আহমেদ ও মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাকী হত্যা মামলার আসামি রওশন আলীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
আজ সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর), বেলা ১১ টার দিকে র্যাব মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক রিপুতি কুমার বিশ্বাস এর কাছে নিয়ে আসলে রওশন আলীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।
গত ১৮ আগস্ট ২০২১ রাজশাহীর শাহ মখদুম থানার ভারালীপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামি রওশন আলী ওরফে উদয় মন্ডল কে আটক করে র্যাব। নিজের পরিচয় গোপন করে রাজশাহীতে আলী নামে পরিচয় দিয়েছেন সকলকে। সেখানে তিনি তার আদি নিবাস গাজীপুর বলেও জানাতেন। একই সাথে প্রাথমিক পর্যায়ে গরুর খামার পরে জমি কেনা-বেচার ব্যবসা শুরু করে। এভাবেই রাজশাহীতে তিনি তার স্হায়ী নিবাস গড়ে তুলেছিলেন। নিজের নাম পরিচয় পরিবর্তন করে উদয় মন্ডল নামে জাতীয় পরিচয়পত্রও তৈরি করেন তিনি।
একই সাথে তিনার নিজ এলাকা মেহেরপুরের গাংনীতে নিয়মিত যোগাযোগও রাখতেন এবং মাঝে মধ্যে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে গা ঢাকা দিতেন।
উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুরে একটি সভায় অতর্কিত গুলিতে নিহত হন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক কাজী আরেফ আহমেদসহ ৫ জন। ঐ মামলায় ২৯ জনকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে ২০০৪ সালের ৩০ আগস্ট কুষ্টিয়া জেলা দায়রা জজ আদালত ১০ জন আসামিকে মৃত্যুদন্ড এবং ১২ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।
এরপর আসামিরা রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করেন। পরে ২০০৮ সালের ৫ আগস্ট উচ্চ আদালত ৯ জন আসামির ফাঁসির আদেশ বহাল রাখেন এবং বাকী ১৩ জনকে খালাস দেন। এর মধ্যে ২০১৬ সালের ৮ জানুয়ারি ৩ জন আসামির ফাঁসির আদেশ কার্যকর করা হয়। এছাড়াও ১ জন আসামি কারাগারে মৃত্যু বরণ করেন। ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত অপর ৫ জন আসামি দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিল। এর মধ্যে রওশন আলী একজন।
রওশন আলী একজন সিরিয়াল কিলার। কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জাসদ নেতা কাজী আরেফ আহমেদ, মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যান পীরতলা গ্রামের আব্দুল বাকী, ভবানীপুর গ্রামের আমজাদ হোসেন মাস্টার ও আলম হুজুর ছাড়াও ৪/৫ জনের হত্যাকান্ডে অংশগ্রহণ ও পরিকল্পনার সঙ্গেও রওশন আলীর সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে জানা যায়।
উল্লেখ্য, ২০০০ সালের আমজাদ হোসেন মাস্টার হত্যা মামলায় ১ নম্বর চার্জশিট ভুক্ত পলাতক আসামি এই রওশন আলী।
ফাঁসি থেকে বাঁচতে নিজ এলাকা মেহেরপুর ছেড়ে নাম পরিচয় পাল্টেও রেহায় না পেয়ে সম্প্রতি র্যাব এর অভিযানে গ্রেফতার হন এবং পরিশেষে র্যাব কড়াকড়ি প্রহরায় আজ মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক রিপুতি কুমার বিশ্বাসের কাছে নিয়ে আসলে রিপুতি কুমার বিশ্বাস কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন রওশন আলীকে।
কাজী আরেফ আহমেদ ও আব্দুল বাকী এ দু’জনকে হত্যা মামলার আসামি হিসাবে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

সর্বশেষ খবর