1. multicare.net@gmail.com : news : VOICE CTG NEWS
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
আজ থেকে গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া শুরু মোরেলগঞ্জে স্পন্দনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি পালন ঝিকরগাছায় মৎস্যজীবী লীগের গাছের চারা ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ ধামরাইতে পূর্বশত্রুতার কারনে গাছ কর্তন হরিপুরে ছেলের লাঠির আঘাতে বাবার মৃত্যু ভাষা শহীদ বিদ্যানিকেতন স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার নামে ঘুষ নেওয়ার অভিযোশিক্ষক নাটোরে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা গ্রহীতাদের উপচে পড়া ভিড় চিরিরবন্দর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১৪ কেজি ২০০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার র‌্যাব-১৩ রংপুর কর্তৃক হেরোইনসহ ২ জন নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোড়েলগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে করোনা সামগ্রী অর্থ সহায়তা প্রদান

অসহায় অনিতার পাশে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,পেলেন নগদ অর্থ ও টিন

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৯ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৩ বার পড়া হয়েছে

ফয়সাল হোসেন, (সাতক্ষীরা প্রতিনিধি) :

অনিতার দুঃখে এতদিনে জনপ্রতিনিধিদের মন গলেনি। তবে খবরটি নজরে আসার পর মন গলেছে তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার। বৃহস্পতিবার (১৯ আগষ্ট) সকাল সাড়ে ১১টায় সরকারি সহায়তা নিয়ে অনিতার বাড়িতে হাজির হন তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিফ-উল-হাসান। এ সময় তিনি অনিতার হাতে ভাঙা ঘরটি মেরামতের জন্য নগদ টাকা ও টিন তুলে দেন।

অনিতা দেবনাথ সাতক্ষীরার তালা সদর ইউনিয়নের জেয়ালানলতা গ্রামের মৃত. সুকুমার দেবনাথ মনুর স্ত্রী। আম্ফান ঝড়ে স্বামী সুকুমার দেবনাথ মনুর রেখে যাওয়া শেষ সম্বল ঘরটি ভেঙে যায়। এক বছর ধরে অর্থাভাবে সেটি মেরামত করতে পারেননি হতদরিদ্র এই বৃদ্ধা।তাই সেই ভাঙ্গা ঘরে কোনরকম কোনঠাসা করে বসবাস করে আসছেন অনিতা দেবনাথ।

ঝড়ের মধ্যে বৃষ্টিতে ভিজে মানবেতর জীবনযাপন করছিলেন তিনি।। ঘটনাটি দৃষ্টিতে আসার পরও খাদ্য বা কোন সহায়তা করেন নি স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বর। অনিতা দেবনাথ অভিযোগ করেন, টাকা দিতে না পারায় সরকারি নতুন ঘর পাননি তিনি।

ঘটনাটি নিয়ে গত বুধবার (১৮ আগষ্ট) সংবাদ প্রকাশ হলে তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দৃষ্টিতে আসার পর তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেন তিনি।

তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিফ-উল-হাসান তার বাড়িতে হাজির হওয়ার পর কান্নায় ভেঙে পড়েন অনিতা দেবনাথ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৃদ্ধাকে শান্তনা দিয়ে নগদ অর্থ সহায়তা করেন ও সাময়িক ভাবে ঘর মেরামতের জন‍্য টিন তুলে দেন তার হাতে।

সহায়তা পাওয়ার পর অনিতা দেবনাথ বলেন, আমার কিছুই নেই। বাড়িতে রান্না করে কি খাবো সেই ব্যবস্থাও ছিল না। ইউএনও স্যার এসে সহযোগিতা করেলেন। আমি খুব খুশি হয়েছি। তার জন্য দোয়া করবো।

তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিফ-উল-হাসান বলেন, বৃদ্ধ মহিলাটি সত্যিই খুব অমানবিক অবস্থায় রয়েছেন। বিষয়টি এতদিনে আমাকে কেউ জানায়নি এটা খুব দুঃখজনক। প্রশাসন সব সময় এমন প্রকৃত অসহায় মানুষদের খুঁজে খুঁজে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা উপহার তুলে দেয়। সংবাদটি দেখার পর তাৎক্ষনিকভাবে এই বৃদ্ধ মানুষটির প্রধানমন্ত্রীর জমি আছে ঘর নেই আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় একটি নতুন ঘর তৈরী করে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমানে ভাঙা ঘরটি প্রাথমিকভাবে মেরামত করে থাকার জন্য টিন ও নগদ সহায়তা তার হাতে তুলে দিয়েছি। এছাড়া সামাজিক সুরক্ষার জন্য সরকারের যে সকল কার্যক্রম রয়েছে তারমধ্যেও তাকে সুবিধাভোগী করা হবে।

এ সময় তালা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ওবায়েদুল হক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ের হিসাব সহকারি মো.মনিরুজ্জামান, ঢাকাপোস্টের প্রতিনিধি আকরামুল ইসলাম, স্থানীয় সাংবাদিক সোহাগ হোসেন, জহুর হোসেন সাগরসহ স্থানীয় গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

সর্বশেষ খবর